শিক্ষাসংক্ষিপ্ত শব্দ হলেও এর শেখর অত্যন্ত গভীরে– ‘দোলনা থেকে কবরপর্যন্ত বিস্তৃত। শিক্ষার প্রকৃত উদ্দেশ্য মৌলিক মানবীয় মূল্যবোধ সমৃদ্ধ মনুষ্যত্বের বিকাশ, আত্মনির্ভরতা, সৃজনশীলতা শুদ্ধ সংস্কৃতি অব্যাহত চর্চা। সমাজ জীবনের ইতিবাচক প্রাপ্তির প্রধান সোপান শিক্ষা। যথোপযুক্ত ও গুনমানসম্পন্ন শিক্ষার মাধ্যমে মানুষ সম্পদের রূপান্তরিত হয়ে সুশীলসমৃদ্ধ সমাজ উন্নত দেশ সৃষ্টি করে। শিক্ষার্থীরা জাতির ভবিষ্যৎ কর্ণধার, শিক্ষক হচ্ছে ভবিষ্যৎ নির্মাণের কারিগর। কারিগর ও কর্ণধারের সেতুবন্ধন রচনা তথা জাতির সঞ্জীবনী শক্তি সৃজনের কারখানা হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

সরকারি মাওলানা মোহাম্মদ আলী কলেজ এর সৃষ্টিলগ্ন থেকেই এই মহান দায়িত্ব অত্যন্ত নিষ্ঠা ও সার্থকতার সাথে পালন করে দেশের একটি শ্রেষ্ঠ ঐতিহ্যমন্ডিত প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি অর্জন করেছে। উপমহাদেশের ক্ষণজন্মা ত্রিরত্ন মাওলানা মোহাম্মদ আলী মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী স্বাধীনতা ও মুক্তির সংগ্রামের প্রবাদপুরুষ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐকান্তিক কর্ম প্রচেষ্টায় এই সক্রিয়তা ও ঐতিহ্যকে আরো সুষমামন্ডিত করেছেন। এমন একটি প্রতিষ্ঠান অধ্যায়ন কিংবা অধ্যাপনা উভয়ই সমান রোমাঞ্চকর, গৌরবের। প্রশাসনিক প্রধান হিসেবে আমার জন্য বাড়তি চ্যালেঞ্জ হলো এই আদর্শ বিদ্যাপীঠ এর ইতিহাস ও ইতিহাসের ঐতিহ্যকে ধরে রাখা। তথ্যপ্রযুক্তির জ্ঞাননির্ভর আজকের এই বিশ্বে টিকে থাকার জন্য যুগোপযোগী শিক্ষার নিয়ামক হচ্ছে প্রয়োজনীয় দক্ষ শিক্ষক এবং মেধা সম্পন্ন শিক্ষার্থী। কলেজের বর্তমান সুযোগ্য, দক্ষ ও নিবেদিত প্রাণ শিক্ষকবৃন্দউপর আমি গভীরভাবে আস্থাশীল। দুর্ভাগ্য এবং রূঢ় বাস্তবতা হচ্ছে সাম্প্রতিককালে কালের পাশের সূচক ক্রমশ: ঊর্ধ্বগামী হলেও প্রকৃতি মেধাসম্পন্ন শিক্ষার্থীর অভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে সর্বত্র। শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানগামী না হয়ে ব্যাপকভাবে ঝুকে যাচ্ছে কোচিং এবং নোট বই এর দিকে। সচেতন দেশবাসী বিবেকবান অভিভাবক বিশেষ করে টাঙ্গাইল বাসিকে অনুধাবন করতে হবে শুধু সার্টিফিকেট লাভের জন্য এ জাতীয় প্রবণতা প্রাকৃতিক জ্ঞানচর্চা ও শিক্ষাকে কেবল খন্ডিত করে না শিক্ষার্থীর অন্ত নিহিত সত্তা ও অফুরন্ত শক্তিকে বাধাগ্রস্ত করে জাতির সঞ্জীবনী শক্তি কে নষ্ট করে দেয়। এ ব্যাপারে সম্মানিত অভিভাবকদের প্রতি আবেদন এম এম আলী কলেজ এর ঐতিহ্য, সংরক্ষণে আপনাদের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য যথাযথভাবে পালনের প্রতিবাদে এগিয়ে আসুন। আমরা কলেজটিকে সাফল্যের সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছাতে দিতে বদ্ধপরিকর। সফলতার সূত্র ধরে প্রতিকুলতাকে ছাপিয়ে এ বিদ্যাপাঠকে তার যোগ্য মর্যাদা অধিষ্ঠিত করবএ ব্রত প্রতি মুহূর্তে।

 

প্রফেসর মো. শহীদুজ্জামান মিয়া
অধ্যক্ষ